তেড়ে আসছে জোড়া ঘূর্ণাবর্ত, একটু পরেই দক্ষিণবঙ্গের ৭ জেলায় বৃষ্টি! IMD-র অ্যালার্ট

পাহাড় (Hill) থেকে শুরু করে সমতল প্রবল শীতে (Winter) কাঁপছে মানুষ। বাংলার (West Bengal) আবহাওয়ার (Weather) বিরাট পরিবর্তন ঘটছে শুধুমাত্র তাই নয় গোটা দেশেরই তাপমাত্রার ওঠানামা অব্যাহত রয়েছে সেই সঙ্গে বজায় রয়েছে বৃষ্টির চোখ রাঙানি এবং কুয়াশার দাপট।

এদিকে শীত, বৃষ্টি ও কুয়াশা এই তিনের দাপটে সাধারণ মানুষের জীবন একপ্রকার জেরবার হয়ে গিয়েছে। এখন ঘরে ঘরে সাধারণ মানুষ জ্বর, সর্দি কাশিতে আক্রান্ত। এসবের মাঝেই জোড়া ঘূর্ণাবতের চোখ রাঙানি। প্রথমেই আসা যাক বাংলার কথায়, দার্জিলিং (Darjeeling) থেকে শুরু করে কালিম্পং (Kalimpong) অন্যদিকে দক্ষিণবঙ্গের (South Bengal) একের পর এক জেলার পারদ হু হু করে নামছে।

   

উত্তরবঙ্গের (North Bengal) একের পর এক জায়গায় তুষারপাত ও শিলাবৃষ্টির আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের তরফে। অন্যদিকে আজ দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু জেলা যেমন পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং হাওড়া জেলার কিছু অংশে হালকা বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এদিকে কলকাতার আকাশও মেঘলা যদিও আজ কলকাতায় বৃষ্টি হওয়া তেমন সম্ভাবনা নেই। তবে আজ কলকাতায় বেশ জাঁকিয়ে ঠান্ডা পড়েছে।

এদিকে বুধবার থেকে ফের একবার আবহাওয়া পরিবর্তনের আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর। আগামী তিন থেকে চার দিন উত্তর ভারতে কুয়াশা ও শৈত্যপ্রবাহের পরিস্থিতি অব্যাহত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী তিন-চার দিন উত্তর ভারতে ঘন কুয়াশার পরিস্থিতি বজায় থাকবে। দিল্লি-এনসিআর থেকে উত্তর-পশ্চিম ও উত্তর-পূর্ব ভারতের মানুষ আগামী চারদিন শৈত্যপ্রবাহ থেকে মুক্তি পাবে না বলে মনে করা হচ্ছে।

cold wave

এদিকে দুটি  ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে। একটি  দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে, শ্রীলঙ্কা উপকূলের কাছে রয়েছে এই ঘূর্ণাবর্ত। অন্যটি কর্ণাটক থেকে ছত্রিশগড় পর্যন্ত একটি অক্ষরেখা রয়েছে। মহারাষ্ট্রে রয়েছে আরও একটি ঘূর্ণাবর্ত। সব মিলিয়ে আবহাওয়ার একদম দফারফা হতে চলেছে আগামী কয়েকদিন। রাজস্থানের বিকানির এবং উত্তরপ্রদেশের কানপুর ও বাংলার দার্জিলিং-এ তাপমাত্রা ২.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।

আইএমডি (India Meteorological Department) জানাচ্ছে, উত্তর-পশ্চিম ভারতের পার্বত্য এলাকায় কিছুটা বাড়বে তাপমাত্রা। যদিও তাপমাত্রা কমবে পূর্ব ভারতে। এদিকে নতুন করে পশ্চিমী ঝঞ্ঝা তৈরি হয়েছে উত্তর-পশ্চিম ভারতে। ফলে একদিকে যখন শীত বাড়বে ঠিক তেমনই বৃষ্টিও হবে। এছাড়া বড় বড় শহরে কোল্ড ওয়েভ অব্যাহত থাকবে।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর