আজান বিতর্কের মাঝে এই শহরে নিষিদ্ধ হল লাউডস্পিকার! ধার্মিক ঝাণ্ডাতেও ‘না” প্রশাসনের

নয়া দিল্লিঃ সারা দেশেই মসজিদে লাউস্পিকারে ব্যবহারের বিরুদ্ধে চলেছে বিরাট শোরগোল। এবার ঘটনার স্থল দাক্ষিণাত্য ছেড়ে উত্তর-পশ্চিম ভারতের রাজস্থানের আজমের। আজমের প্রশাসন সমস্ত জনসাধারণ এবং ধর্মীয় স্থানে নিষিদ্ধ করেছে লাউডস্পিকারের ব্যবহার। প্রশাসন-র তরফে জানানো হয়েছে যে, শব্দদূষণ রোধে এই সিদ্ধান্ত। মহারাষ্ট্র, কর্ণাটক বলিউডের পর এবার রাজস্থান এই বিতর্কে নয়া সংযোজন।

আজমের প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে যে, ৭ এপ্রিল থেকে এই নিয়ম কার্যকর হবে। আজমেরে শুধু লাউড্স্পীকারই নয়, নিষিদ্ধ হয়েছে ধর্মীয় পতাকাও। সম্প্রতি সারা দেশেই ছড়িয়েছে আজান বিতর্কের আঁচ। এজন্য অনেকেই বলছেন যে, শব্দ দূষণ ছাড়াও এই সিদ্ধান্তের পিছনে রয়েছে আজান বিতর্কের ছাপ।

আদেশে এও বলা হয়েছে যে, কোনো ব্যক্তি বা কোনো বিশেষ প্রতিনিধি নিজ কারণে বা কোনো ধর্মীয় কারণে অনুমতি ছাড়া ডিজে ব্যবহার করত পারবেন না। ব্যবহার করার পূর্বে অনুমতি নিতে হবে এসডিএমের (SDM) কাছে। তবে দিনের বেলা বাজানোর অনুমতি মিললেও রাত্রি ১০টা থেকে ৬টা অবধি মিলবে না অনুমতি। এবং অনুমতি মিললেও তা থাকতে হবে নির্দিষ্ট শব্দসীমার মধ্যেই।

এছাড়াও আজমীরে ধর্মীয় পতাকা এবং ধর্মীয় প্রতীক সমূহ হয়েছে নিষিদ্ধ। এসপির জারি করা নির্দেশে বলা হয়েছে যে, অনুমতি ছাড়া নিজের ব্যক্তিগত সম্পত্তিতেও রাখা যাবেনা ধর্মীয় পতাকা। কারণ হিসেবে তিনি বলেছেন, এতে বিঘ্নিত হতে পারে শান্তি। এবং এই নির্দেশ অমান্য করলে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৪৪ ধারায় মামলা হবে তাদের বিরুদ্ধে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button