মূল্যবৃদ্ধির দৌড়ে আজও কীভাবে মাত্র ৫ টাকায় মেলে Parle-G বিস্কিট! প্রকাশ্যে অবাক করা তথ্য

ভারতে পার্লে জি (Parle-G) বিস্কিটের স্বাদ মানুষের ঠোঁটে লেগে রয়েছে। আজ দেশে এটি কেবল আর পাঁচটা অন্যান্য কোম্পানির মত বিস্কুটের একটি ব্র্যান্ড নয়, ভারতীয়দের আবেগ জড়িয়ে রয়েছে এই বিস্কিটের সাথে। সেই শৈশবকাল থেকে পার্লে জি বিস্কিট আমাদের সর্বক্ষণের সঙ্গী। কিন্তু ভাবলেও অবাক লাগে আজ থেকে ২৫ বছর আগেও যা দাম ছিল আজও কীভাবে সেই একই দাম থাকতে পারে এই বিস্কিটের।

সারা বিশ্বে এসেছে ইনফ্লেশন, আর্থিক সংকটের মত এত সমস্যা। আর তাদের জেরে মূল্যবৃদ্ধি হয়েছে সমস্ত বস্তুর। কিন্তু পার্লে জি এর দামে কোনো পরিবর্তন আসেনি এই দীর্ঘ ২৫ বছরে। বিভিন্ন কোম্পানির কাছে আজও অজানা কীভাবে এই ক্রমবর্ধমান মুদ্রাস্ফীতি এবং নিত্য দ্রব্যমূল্যের পরিবর্তনের যুগে পার্লে-জি নিজেদের ৫ টাকার রেট বজায় রেখেছে!

২৫ বছর ধরে Parle-G বিস্কুটের একটি ছোট প্যাকেটের দাম ছিল মাত্র ৪ টাকা। কিন্তু কীভাবে একই দাম বজায় রেখেছে পার্লে জি, সেই প্রক্রিয়া প্রকাশ করেছেন সুইগির ডিজাইন ডিরেক্টর সপ্তর্ষি প্রকাশ। নিজের Linkedin লিখেছিলেন যে, “এটা কীভাবে সম্ভব?”, যদিও তারপরই তিনি এই হিসেব প্রকাশ্যে আনেন।

প্রকাশ ব্যাখ্যা করেন যে, ‘১৯৯৪ সালে, পারলে-জি বিস্কুটের একটি ছোট প্যাকেটের দাম ছিল চার টাকা। অনেক বছর পর রেট এক টাকা বাড়িয়ে প্যাকেটের দাম হয়েছে পাঁচ টাকা। ১৯৯৪ থেকে ২০২১ পর্যন্ত, Parle-G-এর ছোট প্যাকেটের দাম ছিল মাত্র চার টাকা। এছাড়া তিনি লিখছেন যে, পারলে-জি এত বড় পরিসরে তার চিহ্ন তৈরি করার জন্য একটি দুর্দান্ত মনস্তাত্ত্বিক পদ্ধতি ব্যবহার করেছিল নিজেদের মার্কেটিং এর জন্য।’

এরপর তিনি পার্লে জি এর মার্কেটিং ক্যাম্পেইন এর পদ্ধতির বর্ণনা দিতে গিয়ে লেখেন যে, “এখন আমরা যখনই ছোট প্যাকেট বলি, আপনার মাথায় কী আসে? একটি প্যাকেট যা আপনার হাতের মুঠোর মধ্যেই ধরে যায়। পার্লে এই পদ্ধতিটি খুব ভালভাবে বুঝতে পারে, তাই তারা নিজেদের দাম বাড়ানোর বদলে প্যাকেটের আকার ছোট করে মানুষদের মধ্যেকার ধারণাই বদেল দিয়েছে। এরপর ধীরে ধীরে নিজেদের প্যাকেটের সাইজ কমাতে শুরু করে তারা। দাম না বাড়িয়ে তারা কোয়ান্টিটি কমিয়ে দিয়েছে।”

parle g a

উদাহরণ দিয়ে তিনি বুঝিয়ে দেন যে, আগে পার্লের একটি ছোট প্যাকেট আসত ১০০ গ্রামের প্যাকেটে। আজ সেই প্যাকেটের ওজন রয়েছে মাত্র ৪৫ গ্রাম। অর্থাৎ ১৯৯৪ সাল থেকে আজ অবধি ৪৫% হ্রাস পেয়েছে। সেই একই কৌশল ফলো করে আরো বিভিন্ন আলুর চিপস কোম্পানি, টুথপেস্ট কোম্পানি, চকলেট কোম্পানি।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button