ফিকে হচ্ছে রয়্যাল এনফিল্ডের জলবা! গরীবের চাল ভাতে বাড়াচ্ছে হিরো-বাজাজ

ভারতীয় বাজারে ক্রমে নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করছে হিরো মোটোকর্প। অন্য দিকে বাইক প্রেমীদের মধ্যে রয়্যাল এনফিল্ড নিয়ে আলোচনা খুব বেশি হলেও বিক্রির নিরিখে এখন অনেক কম। সম্প্রতি প্রকাশিত কিছু পরিসংখ্যান অনুযায়ী স্পষ্ট দেখা গিয়েছে কোন কোম্পানির বাইক সবথেকে বেশি বিক্রি হয়েছে। কোন কোন কোম্পানির বাইক সেরা পাঁচে রয়েছে সেটাও এখন স্পষ্ট হয়েছে।

বাইক প্রেমীরা শুনলে হয়তো অবাক হবেন, ভারতে সবথেকে বেশি বিক্রি হওয়া সেরা পাঁচ বাইক কোম্পানির মধ্যে নেই রয়্যাল এনফিল্ডের নাম। এনফিল্ডের বাইকের বিক্রি এখন এতটাই কমে গিয়েছে যে টপ ফাইভ থেকে ছিটকে গিয়েছে এনফিল্ড। তুলনায় হিরো মোটোকর্প কোম্পানির বাইকের বিক্রি এখন বেড়েছে অনেকটাই। প্রতি মাসের নিরিখেও হিরো বাইকের বিক্রির গ্রাফ রয়েছে উপরের দিকে।

   

রেকর্ড উচ্চতায় পৌঁছেছে হিরো মোটোকর্প বাইকের বিক্রি। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে বিক্রি হয়েছে ৪,৪৫,২৫৭ ইউনিট। গত বছর একই সময়ে ৩,৮২,৩১৭ ইউনিট বিক্রি করেছিল হিরো মোটোকর্প। শতকরা হিসেবে এই এক বছরে কোম্পানির বিক্রি বেড়েছে প্রায় ১৪%। এক মাসের হিসেবেও দেখা গিয়েছে বৃদ্ধি। চলতি বছরের জানুয়ারিতে হিরোর ৪,২০,৯৩৪ ইউনিট বিক্রি হয়েছিল। সেই হিসেবে জানুয়ারিতে বিক্রি বেড়েছে ৬ শতাংশের কাছাকাছি।

হিরোকে টক্কর দেওয়ার মতো বিক্রি রয়েছে হোন্ডার। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে বিক্রি হয়েছে ৪,১৩,৯৬৭ ইউনিট। গত বছর একই সময়ে ২,২৭,০৬৪ ইউনিট বিক্রি করেছিল হোন্ডা। শতকরা হিসেবে এই এক বছরে কোম্পানির বিক্রি বেড়েছে ৮২.৩১ শতাংশ। এক মাসের হিসেবেও দেখা গিয়েছে বৃদ্ধি। চলতি বছরের জানুয়ারিতে হোন্ডার ৩,৮২,৫১২ ইউনিট বিক্রি হয়েছিল। সেই হিসেবে জানুয়ারিতে বিক্রি বেড়েছে প্রায় ৮ শতাংশ।

এই দুই কোম্পানির পর তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে রয়েছে যথাক্রমে টিভিএস, বাজাজ, সুজুকি। ছয় নম্বরে রয়েছে রয়্যাল এনফিল্ড। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে মাত্র ৬৭,৯২২ ইউনিট রয়্যাল এনফিল্ড বিক্রি হয়েছে। গত বছর একই সময়ে বিক্রি হয়েছিল ৬৪,৪৪৬ ইউনিট। কিন্তু এ বছরের জানুয়ারিতে এই কোম্পানির বাইক বিক্রি হয়েছে মাত্র ৭০,৫৫৬ ইউনিট। ফেব্রুয়ারি মাসে কমেছে বিক্রি।

ছোটোবেলা থেকে খেলাধুলোর প্রতি ভালোবাসা। এখন পেশা। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে লিখছে বিগত কয়েক বছর ধরে।

সম্পর্কিত খবর