শক্তিবৃদ্ধি করল ঘূর্ণাবর্ত, দক্ষিণবঙ্গে আছড়ে পড়বে তুমুল ঝড়-বৃষ্টি! অ্যালার্ট IMD-র

আজ বিশ্বকর্মা পুজো। তিনি কারিগরি দেবতা। তাঁকে দেবতাদের মধ্যে সব কিছুর কারিগর বলা হয়। আর আজ সোমবার এই পুজোকে ঘিরে মানুষের মধ্যে উন্মাদনা তুঙ্গে রয়েছে। এদিকে একাধিক প্যান্ডেলে ঠাকুর চলেও এসেছে। কিন্তু আজ সকালটা একটু অন্যরকমভাবেই শুরু হয়েছে কলকাতা শহর ও শহরতলীবাসীর। ঘুম থেকে উঠতেই সকলের চোখে পড়ল মেঘলা আকাশ, বৃষ্টি। বিগত কয়েকদিন ধরেই বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝেঁপে বৃষ্টি হচ্ছিল পাহাড় থেকে শুরু করে সমতলে। সঙ্গী হয়েছিল দমকা হাওয়া। যদিও গতকাল এক ধাক্কায় চরম চোখ পাল্টি করে আবহাওয়া। ভ্যাপসা গরম, চড়া রোদের দাপট ছিল কাল। যদিও আজ সপ্তাহের প্রথম দিনেই বদলে গেল রাজ্যের আবহাওয়া।

আবারও মিলে গেল আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস। আবারও একবার চোখ রাঙাচ্ছে ঘূর্ণাবর্ত, নিম্নচাপ। এদিকে এই দুইয়ের ফলায় তোলপাড় করা আবহওয়া ফিরে আসছে কলকাতা (Kolkata) সহ দক্ষিণবঙ্গের (South Bengal) জেলাগুলিতে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। আপনিও যদি আজ ছুটির দিন বাড়ি থেকে বেরোনোর পরিকল্পনা করে থাকেন তাহলে আপনার অবশ্যই এই প্ৰতিবেদনটি পড়ে নেওয়া উচিৎ।

আবহাওয়া অফিসের অনুমান, আজ বিশ্বকর্মা পুজোর আনন্দ মাটি করে দিতে পারে নাছোড়বান্দা বৃষ্টি। তবে শুধু আজকেই নয়, আগামীকাল অর্থাৎ গণেশ চতুর্থীর দিনেও বিরাট আবহাওয়া বদলের সাক্ষী থাকতে চলেছেন মানুষ। বঙ্গোপসাগরে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হচ্ছে, যে কারণে দফায় দফায় বৃষ্টি হবে কলকাতা সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গে। আজ মূলত দুই জেলায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। সেই দুই জেলা হল দুই ২৪ পরগনা ও পূর্ব মেদিনীপুর জেলা। আগামী বুধবার অবধি বৃষ্টির দাপট চলবে পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, কলকাতা, হুগলি, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান, পূর্ব বর্ধমান, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ এবং নদিয়ায় বলে খবর।

অন্যদিকে ব্যাপক পরিস্থিতির বদল ঘটবে উত্তরবঙ্গের। আগামী দু’দিন দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর ও মালদায় ব্যাপক বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। যদিও তীব্র গরমও বাড়বে। তবে শুধু বাংলা বললে ভুল হবে, আগামী কয়েকদিন ভারী বর্ষণ-এর সাক্ষী থাকবে দিল্লি সহ দক্ষিণ মধ্যপ্রদেশ, দক্ষিণ-পূর্ব রাজস্থানের বিস্তীর্ণ এলাকা।

weather heavy rain wb

বৃষ্টির দাপট চলবে গুজরাটের বহু এলাকায় যার মধ্যে রয়েছে কচ্ছ ও সৌরাষ্ট্র। আগামী ২০ সেপ্টেম্বর অবধি ব্যাপক বৃষ্টি সাক্ষী থাকবেন রাজ্যের মানুষ। এছাড়া হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে আন্দামান ও নিকোবর, উত্তরাখণ্ড, কেরল, তামিলনাড়ু, কোঙ্কণ ও গোয়া, মণিপুর, মিজোরাম, ত্রিপুরা, ওড়িশা, ঝাড়খণ্ড, হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, উত্তর পঞ্জাব, হরিয়ানা, তামিলনাড়ু সহ দেশের আরো অনেক রাজ্য।