ভারতের একমাত্র গ্রাম, যেখানে থাকে কেবল কম উচ্চতার ব্যক্তিরাই, এক শিল্পী নিজের হাতে বানিয়েছেন এই গ্রাম

দুনিয়াতে ঘটে চলেছে কতইনা অভাবনীয়,আকস্মিক, অত্যাশ্চর্য্য ব্যাপার। তবে এরমধ্যে পিছিয়ে নেই ভারতীয়রাও। একজন শিল্পী ভারতে প্রতিষ্ঠা করেন এক অনন্য গ্রামের, যেখানে বসবাসকারী প্রতিটি মানুষই একটু আলাদা। এখানে থাকা প্রতিটি মানুষেরই আকার সাধারণের তুলনায় একটু ছোট। লোকে এই গ্রামকে বামন গ্রাম বলে ডাকে।

জায়গাটির আসল নাম ‘আমার গাঁও’।আসামের ভারত-ভুটান সীমান্তে অবস্থিত এই গ্রামে প্রায় ৭০ জন লোক বাস করে। প্রকৃতপক্ষে, এই গ্রামে জন্মগ্রহণ করা লোকেদের আমার ছোট নয়, বামনরা নিজেই বসতি স্থাপন করে এখানে। এখানে বসবাসকারী প্রতিটি মানুষের উচ্চতা 4 ফুটের কম।

‘আমার গাঁও’ কথাটির অর্থ আমাদের গ্রাম। ২০১১ সালে একজন শিল্পী দ্বারা স্থাপনা হয় এই গ্রামের। ন্যাশনাল স্কুল অফ ড্রামা (এনএসডি) থেকে স্নাতক পবিত্র রাভা স্থাপনা করেন এই গ্রামটির।বর্তমানে এখানে বসবাসকারী লোকেরা তাকে নিজেদের সর্দার বলেই মনে করে। কেও এই গ্রামে নিজের ইচ্ছায় এসেছেন তো আবার কাওকে এখানেই ছেড়ে দিয়ে গেছে তাদের পরিবারের সদস্যরা। আসামের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা ছোট আকারের এই মানুষজন এখানে পরিবারের মতোই বসবাস করছে।

90d0a486 4ab8 44a4 ab09 11ecc0fab966.jpg

এই গ্রাম তৈরির সময় পবিত্র রাভা বলেন যে বামনদের নিয়ে মজা করে সারা দুনিয়া। এমতাবস্থায় তিনি এইরকম একটি গ্রাম প্রতিষ্ঠার কথা ভাবলেন। এরপর পবিত্র আসামের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এই ক্ষুদে মানুষদের একসাথে এইখানে জড়ো করেন। বর্তমানে সমস্ত লোকই একটি থিয়েটার গ্রুপে কাজ করে। আসামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অনুষ্ঠান করে আসে তারা। তবে এর পেছনে রয়েছে পবিত্র রাভার প্রয়াস। মানুষ যেন বুঝতে পারে এই মানুষগুলোও সাধারণ মানুষের মতোই। শুধু তাদের উচ্চতা আমাদের চেয়ে ছোট। লোকে তাকে বামন না বলে তাদের নিজস্ব নামেই ডাকুক।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button