দেশজুড়ে ব্যাঙ্ক হরতাল, বন্ধ হবে লেনদেন! ATM থেকেও তুলতে পারবেন না টাকা

চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে বড়সড় সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন গ্রাহকরা। কারণ চলতি মাসের শেষ সপ্তাহের একদম শেষে অর্থাৎ আগামী ২৮ জানুয়ারি থেকে ৩১শে জানুয়ারি পর্যন্ত বন্ধ থাকতে পারে ব্যাংক পরিষেবা। দেশব্যাপী ব্যাংক ইউনিয়ন এমনই হুংকার দিয়েছে। এমনকি এই সময় ATM থেকে টাকা তোলার ক্ষেত্রেও সমস্যা হতে পারে।

চলতি মাসের শেষে টানা ৪ দিন ব্যাংক পরিষেবা বন্ধ থাকলে গ্রাহকদের ভোগান্তির শেষ থাকবেনা। বিশেষ করে ব্যাংকের ইউনিয়ন গত ৩০ এবং ৩১ তারিখ ধর্মঘট ঘোষণার পর থেকে সমস্যা বেশ কিছুটা বেড়েছে। কারণ ২৮ জানুয়ারি মাসের চতুর্থ শনিবার তাই সেদিন ব্যাংক বন্ধ থাকবে। আর ২৯ জানুয়ারি রবিবার হওয়ায় সেদিনও ব্যাংক বন্ধ থাকতে চলেছে।

ব্যাংক বন্ধ থাকার খবরে অনেকেই প্রমাদ গুনছেন। কারণ শুক্রবারের মধ্যে ব্যাংকের কাজ শেষ না হলে আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে ১লা ফেব্রয়ারি পর্যন্ত। কিন্তু কেন এরকম ধর্মঘট ডেকেছে ব্যাংক ইউনিয়ন? চলুন সেটাও জানাচ্ছি আপনাদের।

মুম্বাইতে ইউনাইটেড ফোরাম অফ ব্যাংক ইউনিয়ন (UFBU)-র একটি সভা আয়োজিত হয়। সেখানেই ব্যাংক ইউনিয়নগুলো দুইদিনের জন্য ধর্মঘট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সরকারকে চাপ দিয়ে নিজেদের দাবী পূরণ করার জন্যই এমন পদক্ষেপ নিয়েছে বিভিন্ন ব্যাংকের কর্মচারীরা।

ঘটনা প্রসঙ্গে অল ইন্ডিয়া ব্যাংক এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সিএইচ ভেঙ্কটাচালাম মিডিয়াকে বলেন, ইউনাইটেড ফোরামের একটি বৈঠক হয়েছে। সেখানেই ২ দিনের জন্য ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ব্যাংক ইউনিয়নের দাবী, সপ্তাহে ৬ দিনের বদলে ৫ দিন কর্মদিবস রাখতে হবে সরকারকে। সাথে পেনশনও আপডেট করতে হবে।

bank

ব্যাংকের কর্মচারীরা বেতন বাড়ানোর জন্যও সুর ছড়িয়েছেন। আবার বিভিন্ন ক্যাডারে যেখানে এখনো নিয়োগ হয়নি, সেইসমস্ত ক্ষেত্রে নিয়োগও যেন শুরু হয়। সবমিলিয়ে একাধিক দাবী পূরণের জন্য সরকারকে চাপ দিতে এই ধর্মঘট ডেকেছেন তারা।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button