৩০ টাকায় বদলে গেল ভাগ্য, লটারি কেটে কোটিপতি ধূপগুড়ির খেটে খাওয়া যুবক প্রীতম

সম্প্রতি লটারি (Lottery) নিয়ে রাজ্য রাজনীতি বেশ তোলপাড়। এরই মধ্যে মাত্র ৩০ টাকার বিনিময়ে কোটিপতি হলেন ধূপগুড়ির (Dhupguri) প্রীতম। লটারি ভালো না খারাপ, সেই নিয়ে অনেক দ্বন্দ্ব থাকলেও, অনেকেই নিজের জীবনের আর্থিক সংকট থেকে বেরিয়ে আসার জন্য লটারিকেই হাতিয়ার করতে চান।

সম্প্রতি লটারিতেও কারচুপির অভিযোগ এসেছে রাজ্যের শাসক দলের বিরুদ্ধে। শাসক দলের নেতাদের একাংশ নাকি সেই লটারি প্রাইজের টাকাতেই রাতারাতি কোটিপতি হয়েছিলেন, এমনটাই অভিযোগ। যদিও ধূপগুড়ির প্রীতমের কোনো রাজনৈতিক যোগাযোগ নেই। সাধারণ পরিবারের ছেলে তিনি।

ধূপগুড়ি পৌরসভার ১১ নং ওয়ার্ডের সুকান্ত পল্লীর বাসিন্দা প্রীতম সাহা। তিনি সধারণ খেটে খাওয়া মানুষ। ৩০ টাকা দিয়ে একখানা লটারির টিকিট কেটে ভাগ্য পরিবর্তনের চেষ্টা করেন। আর তাতেই খুলে যায় তার ভাগ্য। এক টিকিটেই কোটি টাকার প্রথম পুরষ্কার জোটে তার কপালে।

lottery

আগেরদিন বিকেলবেলা কি মনে হওয়ায় লটারির টিকিট কেটে বাড়ি ফেরেনে, আর পরেরদিন খবর আসে তিনি কোটিপতি! এই খবরে ব্যাপক খুশি প্রীতম এবং তার পরিবার। প্রথমে অবশ্য বিশ্বাস করতে পারেননি। খানিক পরে সম্বিত ফিরে পান তিনি। যদিও ওই টাকায় কি করবেন সেটা এখনো ভাবতে পারেননি প্রীতম সাহা।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button