মাটির বাড়ি, নেই বই-শিক্ষক! ইউটিউব দেখে দেশের সবথেকে কঠিন পরীক্ষা পাশ দিনমজুরের মেয়ের

কলকাতাঃ সফলতার জন্য হতে হয়না ধনী বা গরীব। সফলতার পিছনে টাকার চেয়েও বেশি প্রয়োজন দৃড় সংকল্পের। এরপর তার সাথে কঠোর পরিশ্রম এবং নিষ্ঠা থাকলেই সাফল্যের দ্বার শুধু সময়ের অপেক্ষা। আজ এমনই এক উদাহরণ দিয়েছেন যিনি এক দরিদ্র শ্রমিকের মেয়ে। তিনি GATE (ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক যোগ্যতা পরীক্ষা) পরীক্ষায় হলেন উত্তীর্ণ।

ramkali 1 1200x630xt

ছিলনা কোনো সুযোগ সুবিধাই। তাও সফলভাবে উত্তীর্ণ হলেন দেশের অন্যতম কঠিন পরীক্ষা GATE।
প্রতিবছর এই পরীক্ষা দেন প্রচুর পরীক্ষার্থী। বেশিরভাগই ব্যর্থ হন উতরোতে। কিন্তু মধ্যপ্রদেশের রেওয়া জেলার একটি ছোট গ্রাম থেকে উঠে এসে একটি মেয়ে পরীক্ষাতে পাশ করে দেখালেন। অভাবের সংসারে তাদের ছিলনা ভালো বই, শিক্ষক কিছুই। তার বাবা করেন দিনমজুরের কাজ। তবে নিজের ইচ্ছের জোরেই তিনি পাশ করে দেখিয়েছেন এই কঠিন পরীক্ষা।

তার নাম রামকালি কুশওয়াহা। তাদের গোটা পরিবার থাকে মাটির বাড়িতে। তার বাবা মা দুজনেই করেন শ্রমিকের কাজ। পরিবারে লেগেই থাকে আর্থিক অনটন। এরই মাঝে গোদের ওপর বিষফোঁড়ার মতো এসে পৌঁছয় কোভিড। লকডাউনের ফলে পরিস্থিতি হয় আরো খারাপ। তবে এইসময় তিনি সাথে পান ইউটিউবকে। ইউটিউবের থেকে পরেই সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং এ তিনি অর্জন করেন ৪৩৫ তম স্থান।

ramkali 4

মিডিয়ার সামনে রামকালী কুশওয়াহ জানান যে, তিনি তাঁর মা বাবার সঙ্গে মাটির বাড়িতে থেকেই পড়াশুনা করেছেন। মিডিয়ার সামনেই তিনি স্বগর্বে বলেন যে, “আমার বাবা মা গরীব হলেও আমাদের জন্যে সবসময় পরিশ্রম করেছেন। আমার পাশে থেকেছে আমাদের স্কুলের পদার্থবিদ্যার শিক্ষক সমীর ভার্মা।” তাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button