ছোট সিনেমা হল থেকে ১৭০০০ কোটির ব্যবসা! PVR-র জনক অজয়ের সংঘর্ষের কাহিনী চমকে দেবে

দেশের মেট্রো এবং কিছু বড় শহরগুলিতে বসবাসকারী প্রতি সিনেমা প্রেমী PVR INOX সম্পর্কে জেনে থাকবেন নিশ্চিয়ই। এমন বহু সিনেমাপ্রেমী রয়েছেন যারা মাল্টিপ্লেক্সে সিনেমা দেখতে ভালোবাসেন। আপনিও নিশ্চিয়ই কখনো না কখনো PVR-এ গিয়েছেন। কিন্তু, আপনি কি পিভিআর প্রতিষ্ঠার গল্প জানেন আদৌ? এই মাল্টিপ্লেক্সটি কীভাবে অস্তিত্ব লাভ করেছিল এবং কে এটি তৈরি করেছে সে সম্পর্কে কিছু জানেন?

pvr ajay bijli 2

PVR তৈরির জন্য বহু সংগ্রাম করতে হয় অজয় বিজলিকেঃ
   

পিভিআর শুরু হয়েছে অজয় বিজলির (Ajay Bijli) হাত ধরে। একটি বিশাল বড় সাম্রাজ্য দাঁড় করানো কিন্তু মুখের কথা নয়। আজ এই প্রতিবেদনে অজয় বিজলির সেই সংগ্রামের কাহিনীই সকলের সামনে তুলে ধরা হবে। তাঁর গল্প লক্ষ লক্ষ তরুণ উদ্যোক্তাকে অনুপ্রাণিত করতে পারে।

বাবার ব্যবসা ছেড়ে সিনে দুনিয়ায় প্রবেশ করেন অজয়ঃ

অজয় পৈতৃক ব্যবসার পাশাপাশি তিনি এমন কিছু করার কথা ভেবেছিলেন যা ভারতে মাল্টিপ্লেক্সের উত্থানের গল্প হয়ে উঠতে পারে। পিভিআর অর্থাৎ ‘প্রিয়া ভিলেজ রোড শো’ (Priya Village Roadshow), অজয় বিজলি ১৯৯৭ সালে শুরু করেছিলেন। কিন্তু, পিভিআর তৈরির গল্প এখান থেকে শুরু হয় না। পুরো গল্পটি জানতে আমাদের অনেক পিছনে ফিরে তাকাতে হবে অর্থাৎ একটু ফ্ল্যাশব্যাকে যেতে হবে। পিভিআর প্রতিষ্ঠাতা অজয় বিজলি ১৯৮৮ সালে তার বাবার সাথে পৈতৃক পরিবহন ব্যবসায় (Business) প্রবেশ করে । কিন্তু, তারও আলাদা কিছু করার ইচ্ছা ছিল, তাই অজয় বিজলি তার বাবার কথা না শুনে সিনে দুনিয়ায় প্রবেশ করার কথা ভাবেন।

সিনেমাহল ছিল অজয়ের বাবারওঃ 

অজয় ১৯৭৮ সালে দিল্লিতে তার বাবার কেনা প্রিয়া সিনেমা (প্রিয়া লাভ বিকাশ সিনেমা নামে পরিচিত) তৈরি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। অজয় ভারতের সিনেমাকে একটি নতুন আকার এবং মাত্রা দিতে চেয়েছিলেন। এ জন্য তিনি সবরকম চেষ্টা চালিয়ে যান। অজয় বিজলি জানিয়েছেন যে তিনি নিজেই পিভিআর ব্র্যান্ডের জন্য সিনেমার পোস্টার লাগিয়ে টিকিট বিক্রি করেছিলেন একসময়ে। হ্যাঁ একদম ঠিক শুনেছেন আপনি।

বাবার মৃত্যুর পর খুড়তুতো ভাইদের হাতে পরিবহন ব্যবসা তুলে দেন অজয়ঃ

যাইহোক, সবকিছু ঠিকঠাক চলছিল, কিন্তু একদিন হঠাৎ অজয়ের বাবা মারা যান এবং তার পরিবহন ব্যবসার সমস্ত দায়িত্ব অজয়ের কাঁধে এসে পড়ে। যাইহোক, এমন পরিস্থিতিতেও তিনি ভেঙে পড়েননি, তিনি নিজের লক্ষ্যে অবিচল থাকেন। তিনি অমৃতসরে তার খুড়তুতো ভাইদের কাছে পরিবহন ব্যবসার দায়িত্ব হস্তান্তর করেন এবং নিজের কাছে কিছু অংশ রেখে নেন।

PVR-কে আরও বড় বানাতে বিদেশি কোম্পানির সঙ্গে হাত মেলান অজয়ঃ 

এর পরে অজয় বিজলি আবার পিভিআরকে মাল্টিপ্লেক্স ব্র্যান্ড বানাতে শুরু করেন। এ জন্য তিনি অস্ট্রেলিয়ান কোম্পানি ভিলেজ রোডশোর সঙ্গে ‘প্রিয়া’ মিশিয়ে পিভিআর তৈরি করেন। ১৯৯৭ সালে অজয় বিজলি দিল্লির সাকেতে প্রথম পিভিআর মাল্টিপ্লেক্স খোলেন। এর পরেই যেন দেশে মাল্টিপ্লেক্সের বিপ্লব ঘটে যায়। এর পর ফলাফল আজ সবার সামনে, PVR হয়ে ওঠে দেশের শীর্ষস্থানীয় মাল্টিপ্লেক্স সিনেমা ব্র্যান্ড।

pvr ajay bijli

সংস্থার ওয়েবসাইটে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, দেশের ১১৫টি শহরে পিভিআর-এর মোট ১৭০৮টি স্ক্রিন রয়েছে। এর মধ্যে কয়েকটি শ্রীলংকাতেও অবস্থিত। পিভিআর স্ক্রিনে মোট দর্শক ধারণ ক্ষমতা ৩.৫৯ লক্ষ। শেয়ার বাজারে তালিকাভুক্ত পিভিআরের মোট বাজার মূলধন প্রায় ১৭,৩০০ কোটি টাকা।

সম্পর্কিত খবর