এবার DA মিলবেই, হয়ে গেল বড় ঘোষণা! খুশিতে লাফাচ্ছেন পশ্চিমবঙ্গের সরকারি কর্মীরা

যত সময় এগোচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকারী কর্মী ও পশ্চিমবঙ্গের (West Bengal) সরকারী কর্মীদের (Employee) মধ্যেকার ডিএ (Dearness allowance) বা মহার্ঘ্য ভাতার ফারাকটা বেড়েই চলেছে। এদিকে আরই তত বেশি করে যেন ক্ষোভে ফুঁসতে শুরু করেছেন এই রাজ্যের কর্মীরা। মাসের পর মাস ধরে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখিয়েও কোনওরকম সুরাহা মিলছে না। অন্যদিকে একের পর এক রাজ্য সরকার থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় সরকার নিজেদের কর্মী ও পেনশন ভোগীদের DA বাড়িয়েই চলেছেন। এদিকে ডিএ বৃদ্ধির অপেক্ষায় কখনও রাজ্য সরকার তো আবার কখনও হাইকোর্ট, সুপ্রিম কোর্টের দিকে চাতক পাখির মতো তাকিয়ে রয়েছেন সরকারী কর্মীরা। তাঁদের একটাই প্রশ্ন, মিলবে কি ডিএ?

   

da mamata wb da

এদিকে এই নিয়ে আগামী ৩ নভেম্বর সুপ্রিম কোর্টে শুনানি রয়েছে। কী রায় দেয়, সেদিকে নজর রয়েছে সকলেরই। এরই মাঝে একপ্রকার বোমা ফাটালেন বিজেপি বিধায়ক তথা বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। যারপর থেকে ডিএ নিয়ে নতুন করে নানান প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। পশ্চিমবঙ্গের লক্ষাধিক সরকারী কর্মীর মধ্যে একপ্রকার আশার সঞ্চার জুগিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। সাম্প্রতিক সময়ে শুভেন্দুর একটা মন্তব্যের পর বুকে অনেকটাই বল পেয়েছেন সরকারী কর্মীরা বলে মনে করা হচ্ছে।

আপনিও কি জানতে চান শুভেন্দু অধিকারী কী এমন বলেছেন? তাহলে ঝটপট পড়ে ফেলুন এই প্রতিবেদনটি। সম্প্রতি শুভেন্দু অধিকারীকে বলতে শোনা গিয়েছিল, “আসন্ন ডিএ মামলার শুনানিতে আমাদের পক্ষ থেকে দুজন সিনিয়র আইনজীবী সুপ্রিম কোর্টে উপস্থিত থাকবেন। রাজ্য সরকার সিনিয়র আইনজীবীদের দিয়ে শুনানির তারিখ বারবার পিছিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন৷ সেসব সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত। তা নিয়ে আমাদের কোনও বক্তব্য নেই তবে এই শুনানিতেই যাতে ডিএ মামলার নিষ্পত্তি হয় সেই চেষ্টা করব।“

suvendu adhikari

এমনিতেই এই ডিএ মামলায় একদম শুরু থেকেই বড় ভূমিকায় দেখা গিয়েছে বাংলার দুঁদে আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। এই মামলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছে সরকারি কর্মচারীদের বামপন্থী সংগঠনের হয়ে আইনজীবী ফিরদৌস শামিম, বিজেপির সংগঠন সরকারি কর্মচারী পরিষদ ও তাদের আইনজীবী গুড্ডু সিংহ। এদিকে শোনা যাচ্ছে, ডিএ মামলা নিয়ে আসরে নামতে পারে নিয়ে বড় বিজেপির আরও দুই বড় আইনজীবী।