সেঁকতেন রুটি, এখন বিশ্বের ভয়ঙ্কর বোলার! সিরাজের জন্মদিনে জানুন তার অজানা কাহিনী

আজ ভারতীয় ক্রিকেট দলের তারকা বোলার মহম্মদ সিরাজের জন্মদিন। ৩০ বছর বয়স হল তাঁর। ১৯৯৪ সালে হায়দরাবাদে জন্মগ্রহণ করেছিলেন মহম্মদ সিরাজ। এক সময় রুটি সেঁকতেন নিজের হাতে। এখন তিনি ভারতের অন্যতম সেরা পেস বোলার। তিরিশ বছর বয়সে অনেক কিছু দেখেছে। শিখেছেন স্ট্রাগল না করলে জীবনে সাফল্য পাওয়া যায় না।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে মহম্মদ সিরাজকে নিয়ে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করা হয়েছে। সেখানে সিরাজ বলেছেন নিজের জীবনের উত্থানের গল্প। চলার পথে অনুপ্রেরণা পাওয়ার জন্য সিরজের এই জীবন গল্প মন ছুঁয়ে যাবে প্রত্যেক মানুষের।

   

ছোটবেলা থেকে ক্রিকেট খেলতে ভালবাসেন মহম্মদ সিরাজ। কখনও ভারতীয় দলের সদস্য হতে পারবেন এটা হয়তো তখনই ভাবতে পারেননি। সিরাজ জানিয়েছেন, “ক্যাটারিংয়ের কাজের সঙ্গে আগে যুক্ত ছিলাম। মাঝে মধ্যে ক্রিকেট খেলতাম। মা বারবার বলতেন, যা বাবা একটু পড়তে বোস। পরিবারে বাবা ছিলেন একমাত্র রোজগেরে সদস্য। আমি কখনও ১০০-২০০ টাকা উপার্জন করলে সেটা হতো খুব বড় ব্যাপার। নিজের কাছে ৫০ টাকা রেখে পরিবারের খরচের জন্য ১৫০ টাকা দিতাম।”

 

“রুটি সেঁকার কাজ করতে হতো আমাকে। হাতে যাতে বেশি ছ্যাঁকা না লাগে সে জন্য কাপড় বেঁধে রাখতাম। এখন এসবই জীবনের অংশ হিসেবে মনে হয়। জীবনে এই কঠিন মুহুর্তগুলো না থাকলে আজ হয়তো সাফল্য পেতাম না।”

বিসিসিআই-এর শেয়ার করা ভিডিওতে সিরাজ বলেছেন, “বিশ্বের যে প্রান্তেই থাকি না কেন বাড়ি, নিজের শহরে ফেরার মতো আনন্দ আর কিছুতে নেই। বাইরে থাকলে ভাবি কখনও ঘরে ফিরতে পারবো। যত স্বস্তি সবই রয়েছে আমার এই শহরে। এখানেই খেলেছি, বড় হয়েছে, নস্টালজিক চায়ের দোকান… এগুলো কখনও ভুলতে পারবো না।”

ছোটোবেলা থেকে খেলাধুলোর প্রতি ভালোবাসা। এখন পেশা। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে লিখছে বিগত কয়েক বছর ধরে।

সম্পর্কিত খবর