‘এই শিক্ষা দিয়েছেন ছেলেকে” আবিরের বাবাকে বিস্ফোরক উক্তি বিপ্লব চ্যাটার্জীর! তুঙ্গে শোরগোল

সিনেমার পর্দায় তিনি অনেক ক্ষেত্রেই দুর্ধর্ষ ভিলেন। বিন্দুমাত্র রেয়াত করেন না পর্দার নায়কদের। বড়ো পর্দার বাইরে ছোট পর্দা থেকে শুরু করে থিয়েটারেও সমান সাবলীল তিনি। তবে এই দাপুটে অভিনেতাই আজ লোকচক্ষুর আড়ালে। একটা সময় চুটিয়ে কাজ করলেও বর্তমানে তাকে আর বিশেষ দেখা যায়না। বলা ভালো টলিপাড়া একপ্রকার ভুলিয়েই দিয়েছে বিপ্লব চ্যাটার্জীকে (Biplab Chatterjee)।

আসলে এই প্রবীণ অভিনেতা এখন আর বিশেষ কাজ পাননা। তবে পর্দায় কাজ থাক না থাক বিতর্কের কিন্তু হামেশাই আছেন। বিতর্কিত মন্তব্য করে কীভাবে লাইমলাইট টেনে নিতে হয় তা কিন্তু বিপ্লব ভালোই জানেন। এই যেমন কিছুদিন আগেই বাংলা সিরিয়ালকে এক হাত নিতে গিয়ে লীনা গাঙ্গুলীকেই কটাক্ষ করে বসেন।

তবে পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যেতেই প্রকাশ্যে ক্ষমাও চেয়ে নেন। বিপ্লব জানান, ‘উত্তেজনার বশে বলে ফেলেছি’। পূর্বের এই বিতর্কের রেশ কাটতে না কাটতেই সম্প্রতি আরো এক নতুন ঝামেলার উদ্রেক ঘটিয়েছেন অভিনেতা। আসলে সদ্যই এক সাক্ষাৎকারে রাজ্যের হাল হকিকত নিয়ে কথা বলতে গিয়ে এমন কিছু মন্তব্য করে বসেন যার ফলে বেশ চর্চা শুরু হয়েছে রাজ্যে।

এইদিন তাকে প্রশ্ন করা হয়, তাপস পালকে গান স্যালুট দেওয়াটাকে তিনি কতটা সমর্থন করেন? কোনোরকম রাখঢাক না রেখেই বিপ্লব বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে ব্যক্তিগতভাবে আমার ভালো লাগেনি। কারণ এটা নেতাদের দেয়, শহীদদের দেয়। ওরা (রাজ্য সরকার) দিয়েছে ওদের খুশি। সে পেয়ে গেছে বেচারা ভালো। ভালো অভিনেতা ছিল। কিন্তু আমার সঙ্গে খুব অভদ্র ব্যবহার করেছিল শেষের দিকে।’

এই বিষয়ে নিজের অভিজ্ঞতার কথা জানাতে গিয়ে বিপ্লব বলেন, একবার এক দূর্ঘটনায় আহত হন তাপস পাল। চপারের আঘাতে মোট ৩৪ টা সেলাই পড়েছিল প্রয়াত অভিনেতার মাথায়। সেইসময় নিজের রক্ত দিয়ে নাকি তাঁর প্রাণ বাঁচিয়েছিলেন তিনি। বিপ্লবের কথায়, এইসব উপকারের কথা নাকি আর মনে রাখেননি তাপস পাল।

biplab chatterjee

এইদিন কথাপ্রসঙ্গে উঠে আসে আবির চট্টোপাধ্যায়ের (Abir Chatterjee) নাম। তার কথা বলতে গিয়ে বিপ্লব বলেন, ‘বয়স্ক মানুষের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞান এদের নেই। এরা অনেককিছু পেয়ে গিয়েছে। এদের মানুষ বলব আমি? কোনওদিন বলব না’। শুধু তাই নয়, পুরোনো দিনের এক তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা মনে করে বিপ্লব বলেন, ‘আমি তো ওর (আবির) বাবাকে (ফাল্গুনী চট্টোপাধ্যায়) বলেছি, ‘ আপনি এই শিক্ষা দিয়েছেন ছেলেকে?’ একদম চুপ ওর বাবা।’ যদিও এই প্রসঙ্গে আবির এখনও চুপ। তবে বিপ্লবের এইসব বক্তব্য আবার নতুন কোনো বাকযুদ্ধের সূচনা না ঘটালে হয়!

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button