অভিনয় করেছেন বাংলা সিরিয়ালে, নিজেকে শেষ করার চেষ্টা উঠতি অভিনেত্রীর! ভাইরাল ফেসবুক পোস্ট

মাত্র কয়েকদিন আগেই একের পর এক মডেলের আত্মহত্যার ঘটনায় তোলপাড় হয়ে ওঠে শহর কলকাতা (Kolkata)। সেই ঘটনার রেশ কাটাতে না কাটতেই সামনে এল আরেক উঠতি মডেলের আত্মহত্যার চেষ্টার ঘটনা। যদিও বিপদ কেটে তিনি প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন, কিন্তু এখনো মুকুন্দপুর এর এর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তিনি। তবে মডেলের এদিনের সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট ঘিরে তোলপাড় চারিদিকে ।

জানা যাচ্ছে যে, আত্মহত্যার চেষ্টা করার আগে সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি পোস্ট করেন তিনি। আর সেই পোস্টে পরিবারের বিরুদ্ধে নিজের দুঃখ, হতাশা, রাগের কথা উগরে দিয়েই বেশ কয়েকটি ঘুমের ওষুধ খেয়ে নেন। যদিও ভোরের দিকে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই তরুণীর নাম দেবলীনা দে। কালনা নিবাসী ওই তরুণী আসলে ভাড়া থাকতেন মুকুন্দপুরেরই উত্তলিকা নামের একটি আবাসনে। এর আগে কিছু সিরিয়ালে কাজ করলেও খুব বেশি উপার্জন করেননা তিনি, আর এই উপার্জনের কারনেই সূত্রপাত হয় ঝামেলার।

বাড়ির সাথে উপার্জন নিয়ে বেশ মনোমালিন্য চলছিল তার। পরিবারের সাথে কথা বললে জানা যায় যে, প্রতি মাসেই বাড়ি ভাড়া এবং রান্নার কাজের লোকের জন্য দশ হাজার টাকা দিতেন তারা। এসবের মধ্যে ছোটখাটো ঝামেলা চললেও গত ২২ জুন দেবলীনার জন্মদিনের দিন ঘটনার সূত্রপাত। সেদিন জন্মদিনের অনুষ্ঠানের পর পর ফ্যাশন বুটিক করার কথা বলতেই ঝামেলা বেড়ে যায়। এমনকি ওই ঘটনার ফল এতটাই খারাপ হয় যে, পরিস্থিতি হাতের বাইরে গিয়ে রীতিমত হাতাহাতির পর্যায়ে পৌঁছায় তার ভাই-র সাথে।

380006 debolina

এরপর গাড়ি ভাড়া করে কলকাতা আসতে চাইলে তার মাও আসতে চেয়েছিলেন, কিন্তু কোনোভাবেই তাকে আসতে দেননি দেবলীনা। ঘটনার পর ছন্দপতন হয় যখন নরেন্দ্রপুরে একটি আগমনির মিউজিক ভিডিও শ্যুট চলাকালীন হঠাৎই গায়েব হয়ে যান তিনি। মোবাইলেও তাকে পাওয়া যায়নি, কিন্তু তার ফেসবুক পোষ্টের সূত্র ধরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিপদ কিছুটা কাটলেও এখনো হাসপাতালেই থাকতে হবে কিছুদিন।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button