‘তুমি পাশেই আছো” নতুন ক্লাসে যাওয়ার আগে বাবার ছবি জড়িয়ে আবেগঘন অভিষেক কন্যা

কলকাতাঃ সদ্যই বাবা হারা হয়েছেন অভিষেক কন্যা। বাবা-মেয়ের সম্পর্কও ছিল সেইরকম। মেয়েকে চোখে হারাতেন অভিষেক চট্টোপাধ্যায়। নিজের মেয়েকে আদর করে ডাকতেন ‘ডল’ বলে। মাত্র ১২ বছর বয়সে বাবাকে হারিয়ে শোকে কাতর মেয়ে। মৃত্যুর আগে অভিষেক স্ত্রী এর কাছে বারবার জানতে চেয়েছিলেন মেয়ের কথা।

বাবা চলে গিয়েছে না ফেরার দেশে। কিন্তু অভিষেক কন্যা বিশ্বাস করে যে, তার বাবা সবসময় রয়েছে তার সাথেই। বৃহস্পতিবার স্কুল যাওয়ার আগে সে জড়িয়ে ধরে বাবার ছবি। আসলে স্কুলে যাওয়ার সময় আগে বাবার কাছে আদর খেত, তারপর স্কুলে পৌঁছাত সে। বাবার অনুপস্থতিতে বাবার ছবিকেই জড়িয়ে ধরে ডল। সেই ছবিই সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখে, ‘প্রিয় বাবা, আজ ক্লাস সেভেনে আমার প্রথম দিন। তোমার আশীর্বাদ চাই। আমি জানি তুমি সবসময় আমার সঙ্গে আছো। তোমার প্রিয় ডল।’

এইছবির নীচে অভিষেকের স্ত্রী সংযুক্তা লিখেন যে, ‘আপনারা আমার ডলকে শুভেচ্ছা ও আশীর্বাদ করুন। ওর ক্লাস সেভেনের নতুন টার্ম শুরু হল।’ গত রবিবার ছিল অভিষেক চট্টোপাধ্যায়ের শ্রাদ্ধানুষ্ঠান। প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডের অভিজাত অ্যাপার্টমেন্টের কমিউনিটি হলে আয়োজন করা হয়েছিল বিরাট অনুষ্ঠানের। উপস্থিত ছিলেন তাদের পরিবারের সদস্যরা, বন্ধুবান্ধবরা এবং ইন্ডাস্ট্রির লোকেরাও উপস্থিত ছিলেন।

বাবার মৃত্যুর পর এই প্রথম কথা বলতে দেখা যায় অভিষেক কন্যাকে। তবে এইদিন তাকে তার বাবাকে নিয়ে প্রশ্নও করেনি কেও। যাতে মনে কষ্ট না পায় বাচ্চা মেয়েটি। কিন্তু এদিন সাইনা নিজেই মুখ খোলে। অভিনয়ের দিকে বরাবরই ঝোঁক তার। সে এদিন নিজেই বলে যে, আগামীদিনে অভিনয় করতে চায় সে। অভিষেকের স্ত্রী এরও তাই মত। তিনিও চান বড় অভিনেত্রী হয়ে উঠুক সাইনা। তার বাবারও তাই ইচ্ছে ছিল। এখন মেয়ে বাবার সেই ইচ্ছেই পূরণ করতে চায়।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button