৩২ কোটি আধার বাতিল করার পথে UIDAI, আপনারটা ঠিক আছে? চেক করুন এই সহজ উপায়ে

বর্তমান সময়ে আধার কার্ড (Aadhaar) আজ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নথি হয়ে উঠেছে। এটা এখন সব জায়গাতেই প্রয়োজন। আধার কার্ডে ব্যক্তির নাম, জন্ম তারিখ, ঠিকানা ইত্যাদি রেকর্ড করা হয়। আধার নম্বর আজ আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ নথির সঙ্গে যুক্ত। সরকারি প্রকল্পের সুবিধাও এটি ছাড়া আর পাওয়া যায় না। সরকার যে ভর্তুকি দেয়, তা এখন শুধু আধার সংযুক্ত ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টেই আসে।

তবে এবার এই আধার কার্ড সংক্রান্ত একটি ভয়ঙ্কর তথ্য সামনে উঠে এসেছে যা সকলের রাতের ঘুম উড়িয়ে দিতে পারে। আপনারও কি আধার কার্ড আছে? তাহলে আজকের এই প্রতিবেদনটি রইল শুধুমাত্র আপনার জন্য। সম্প্রতি বর্ধমানের জামালপুর গ্রামের প্রায় ৭০০টি পরিবারের কাছে বাড়ি বয়ে চিঠি আসে। আর সেই চিঠিতে জানানো হয় যে তাদের আধার কার্ড বাতিল করে দেওয়া হয়েছে।

   

এদিকে পোস্ট অফিসের তরফে এরকম শয়ে শয়ে আধার কার্ড বাতিলের চিঠি যাওয়াকে ঘিরে ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজ্য তথা সমকগর দেশজুড়ে। তবে শুধুমাত্র এখানেই শেষ নাকি, এবার শোনা যাচ্ছে যে এক ধাক্কায় ৩২ কোটি আধার কার্ড বাতিল করে দিতে পারে সরকার। আর এই জল্পনার খবর টের পেয়ে ইতিমধ্যে আধার তৈরি সেন্টারগুলোতে মানুষ ভিড় জমাতে শুরু করেছেন। বলে ভালো, এখন আধার কার্ডে যদি কারোর কোনো তথ্য ভুল থাকে তা ঠিক করতে জায়গায় জায়গায় মানুষের ভিড় চোখে পড়ার মতো।

এক সরকারি হিসেব অনুযায়ী, বর্তমান সময়ে ১৩০ কোটি মানুষের কাছে আধার কার্ডের মতো জরুরি নথি রয়েছে। কিন্তু এই ১৩০ কোটির মধ্যে থেকে যদি ৩২ কোটি আধার কার্ড বাতিল করে দেওয়া হয় তাহলে তা মোটেই ভালো কথা নয়। এই বিষয়ে মুখে কুলুপ এটেছে UIDAI। এদিকে অনেক আধার কার্ড ব্যবহারকারী অভিযোগ তুলেছেন, হঠাৎ করেই আধার কার্ড বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অনেকেই রেশন পাচ্ছেন না।

স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে, আচমকা কেন এইভাবে আধার কার্ড বাতিল করা হচ্ছে? অনেকেই মনে করছেন যে আধার কার্ড তৈরির সময় জমা দেওয়ার নথিপত্রের ত্রুটি থাকায় আধার কার্ড বাতিল করে থাকতে পারে UIDAI কর্তৃপক্ষ।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর